মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের অবিশ্বাস্য জয়

রিপোটার:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২২
  • ৩৭০ Time View

আগে কখনও বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হয়নি পাকিস্তান। এবারই প্রথম। আর প্রথম ম্যাচেই হারতে হলো বাবর আজমদের। ওয়াসিম-শাদাবের বোলিং নৈপুণ্যে অল্প রানে জিম্বাবুয়েকে থামিয়ে দিলেও সেই অল্প রানই পার করতে পারেনি পাকিস্তান।

বৃহস্পতিবার বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের ম্যাচে পাকিস্তানকে ১ রানে হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে। পার্থ স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। কেবল শন উইলিয়ামস পেরেছেন ত্রিশ পার করা ইনিংস খেলতে। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩০ রানেই থামতে হয় তাদের। জবাব দিতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে পাকিস্তানও। শেষ ওভারের থ্রিলারে ১২৯ রানেই থেমে যেতে হয় তাদের।

ওয়েসলে মাধেভেরে ও ক্রেইগ এরভিনের ব্যাটে শুরুটা ভালোই করে জিম্বাবুয়ে। ৩০ বলে ৪২ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটার। এরপর অধিনায়ক এরভিন ১৯ রানে বিদায় নিলে ধ্বস নামে জিম্বাবুয়ে শিবিরে। আরেক ওপেনার মাধেভেরেও বিদায় নেন ১৭ রান করে। ব্যাট করতে এসে মাত্র ৮ রানে উইকেট হারান মিল্টন শুম্বা। শন উইলিয়ামস অবশ্য লড়ে যান বেশ কিছুক্ষণ। ২৮ বলে ৩১ রানের ইনিংস খেলে শাদাব খানের শিকার হন তিনি।

বিশ্বকাপের মূল পর্বে এসে ব্যাটে রান পাচ্ছেন না সিকান্দার রাজা। গত ম্যাচে ব্যর্থতার পর এই ম্যাচেও মাত্র ৯ রানে বিদায় নেন তিনি। শেষদিকে রায়ান বার্ল ও ব্রাড ইভান্স থিতু হয়ে কিছু রান যোগ করেন। ইভান্স ১৫ বলে ১৯ রান করে বিদায় নিলেও বার্ল অপরাজিত থাকেন ১০ রানে।

পাকিস্তানের হয়ে ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন ওয়াসিম। সমান ওভারে ২৩ রান খরচায় ৩ উইকেট পান শাদাব খান। একটি উইকেট পান হ্যারিস রউফ।

ছোট লক্ষ্য তাড়ায় ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি পাকিস্তান। বাবর আজম ৪ রান ও মোহাম্মদ রিজওয়ান ১৪ রানে উইকেট হারিয়ে ফেলেন। তবে তিনে নেমে প্রতিরোধ করেন শান মাসুদ। চারে নামা ইফতেখার আহমেদ ৫ রানে বিদায় নিলেও তাকে সঙ্গ দেন পাঁচে নামা শাদাব খান। ৩৬ বলে গড়েন ৫২ রানের জুটি। এরপর শুরু হয় সিকান্দার রাজার ঘূর্ণি।

চতুর্দশ ওভারের চতুর্থ বলে ১৭ রানে শাদাব খানতে ফেরান রাজা। পরের বলেই ব্যাট করতে নামা হায়দার আলীকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন তিনি। নিজের পরের ওভারে বল করতে এসে থিতু হয়ে ব্যাট করতে থাকা শান মাসুদকেও ফেরান এই স্পিনার। ৩৮ বলে ৪৪ রান করে পাকিস্তানি এই ব্যাটার বিদায় নিলে বিপর্যয়ে পড়ে পাকিস্তান।

শেষদিকে গিয়ে থিতু হয়ে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখান মোহাম্মদ নওয়াজ। শেষ ওভারে পাকিস্তানের দরকার ১১ রান। বল করতে আসেন ব্রাড ইভান্স। প্রথম বলে ৩ রান নেন নওয়াজ, দ্বিতীয় বলে ওয়াসিম চার হাকিয়ে রানে-বলে সমান করে নেন। পরের বলে এক রান নিয়ে নওয়াজকে দেন স্ট্রাইক। কিন্তু চতুর্থ বল ব্যাটে লাগাতে পারেননি নওয়াজ। পরের বলেই হারিয়ে ফেলেন উইকেট। ২২ রান করে বিদায় নেন তিনি। শেষ বলে ব্যাট করতে নেমে দুই রান নিতে গিয়ে আউট হন শাহিন আফ্রিদি।

জিম্বাবুয়ের হয়ে ৪ ওভারে ২৫ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন রাজা। সমান রান দিয়ে জোড়া উইকেট নেন ইভান্স। একটি করে উইকেট পান জঙ্গে ও মুজারবানি।

Please Share This Post in Your Social Media

এই জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2022 deshnews24.com
Theme Customized By Max Speed Ltd.