12 December 2017 , Tuesday
Bangla Font Download

You Are Here: Home » বিনোদন » কার বক্তব্য সত্য? কাজী হায়াৎ না চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির

মনিরুল ইসলাম : চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সাথে বিশিষ্ট নির্মাতা কাজী হায়াৎ এর মধ্যে বিরোধ চলছে। এ নিয়ে এক পক্ষ অপর পক্ষকে দোষারোপ করে বিবৃতি পাল্টা বিবৃতি দিচ্ছে। এ ঘটনায় চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা বিভ্রান্তির মধ্যে পড়েছেন। কার বক্তব্য সঠিক তা নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষন।

কিছুদিন আগে পরিচালক সমিতির বিরুদ্ধে নতুন ছবির নাম করণ নিয়ে অসহযোগীতার অভিযোগ এনে পরিচালক সমিতি থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

কাজী হায়াৎ তার পদত্যাগ পত্রে উল্লেখ করেছেন, ‘একটি সিনেমা নির্মাণ করতে গিয়ে আপনাদের কাছে চলচ্চিত্রটির নাম নিবন্ধন করার আবেদন করেছিলাম। এই নাম নিবন্ধন নিয়ে আমার সঙ্গে আপনারা যে টালবাহানা শুরু করেছেন তাতে আমি ভীষণভাবে লজ্জিত। এমতাবস্থায় দয়া করে আমার সমিতির সদস্যপদ প্রত্যাহার করে আমাকে বাধিত করিবেন।’

প্রশ্ন উঠেছে যৌথ প্রযোজনা নিয়ে চলচ্চিত্র ঐক্যজোটের বিপক্ষে ও জাজ মাল্টিমিডিয়ার পক্ষে অবস্থান নেয়ার কারণেই তার সঙ্গে এমনটা ঘটছে কিনা?

এবিষয়ে সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আবেদনপত্রটি আমরা পেয়েছি। বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা করছি।’

এরপর পর গত ৬ আগষ্ট পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন সাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত কয়েক মাসের মধ্যে কাজী হায়াৎ সমিতির বরাবরে নতুন কোনো চলচ্চিত্রের নাম অন্তর্ভুক্তির কোনো আবেদন করেননি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নতুন চলচ্চিত্রের নাম অন্তর্ভুক্তির কারণ উল্লেখ করে গত ৩ আগস্ট সদস্যপদ প্রত্যাহারের জন্য একটি আবেদনপত্র সমিতিতে জমা দিয়েছেন। পদত্যাগ পত্রের প্রাপ্তি স্বীকার পত্রের ফটো বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করলেও ছবির নাম অন্তর্ভুক্তির আবেদনের কোনো অনুলিপি প্রকাশ করেননি। এতে প্রমাণ হয় তিনি কোনো নতুন ছবির নাম অন্তর্ভুক্তির আবেদন করেননি।

আরো উল্লেখ করা হয়, চলচ্চিত্রের সাম্প্রতিক আন্দোলন কর্মসূচিতে নবীণ-প্রবীন সবাই যখন এক পতাকার তলে ঠিক সেই মুহূর্তে বিরোধী শিবিরের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে তাকে দেখা গেলেও তার সম্মান রক্ষার্থেই আমরা তাকে প্রশ্নবিদ্ধ করিনি। সর্বোপরি সমিতির সকল সদস্যের সম্মান রক্ষার্থে আমরা এহেন অসত্য এবং ভিত্তিহীন বক্তব্য ও সংবাদে তীব্র প্রতিবাদ ‍ও নিন্দা জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, কাজী হায়াৎ দেশনিউজকে বলেন, আমি পদত্যাগপত্রে আমার বক্তব্য উল্লেখ করেছি। নতুন করে কিছু বলার নেই।

Use Facebook to Comment on this Post

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

উপদেষ্টা : মাসুদ রানা, কাজী আকরাম হোসেন, খন্দকার সাঈদ আহমেদ, প্রকাশক : রোকেয়া চৌধুরী বেবী, সম্পাদক : রফিক আহমেদ মুফদি, বিশেষ প্রতিনিধি : মোস্তাক হোসেন, মনিরুল ইসলাম, চিফ রিপোর্টার: জুটন চৌধুরী, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : জাকির হোসেন। যোগাযোগ: ২৭৮, পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা-১২১৯। বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রুম নম্বর ১২০৪, মৌচাক টাওয়ার, মালিবাগ মোড়, ঢাকা। মোবাইল : ০১৮১৯-০৬৭৫২৯, ই-মেইল: monirjjd@yahoo.com,

Site Hosted By: WWW.LOCALiT.COM.BD