April 14, 2021, 9:56 am

বেতন দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ, মহাসড়ক অবরোধ, রাবার বুলেট

বেতন দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ, মহাসড়ক অবরোধ, রাবার বুলেট

ময়মনসিংহের ভালুকায় শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদ ও বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ, মহাসড়ক অবরোধ, দুই পক্ষের মাঝে ইটপাটকেল নিক্ষেপ, হামলা ও মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ লাঠিচার্জ, টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ওই ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যসহ কমপক্ষে ২৩ জন আহত হয়েছে। আজ সোমবার (৬ এপ্রিল) সকালে উপজেলার মাস্টারবাড়ি এলাকায় ক্রাউন অয়্যার্স লিমিটেডে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, আজ সোমবার (৬ এপ্রিল) সকালে কাজে যোগদান করতে এসে ক্রাউন অয়্যার্স প্রাইভেট লিমিটেডের শ্রমিকরা দেখেন গত মাসের বেতন না দিয়েই কারখানা কর্তৃপক্ষ গেটে কারখানা বন্ধের নোটিশ টাঙিয়ে রেখেছে। ওই সময় শ্রমিকরা মিল কর্তৃপক্ষের কাছে তাদের গত মাসের বেতন দাবি করে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ প্রথমে আগামী ১৩ এপ্রিল ও ৮ এপ্রিল বেতন দিতে চাইলে শ্রমিকরা তা প্রত্যাখান করে এবং তাদের দাবি আদায়ে বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে তারা পাশের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে নেমে আসে এবং প্রায় আড়াই ঘণ্টা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকে। একপর্যায়ে তারা কারখানার দিকে ইটপাটকেল ছুড়তে শুরু করে।

এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত শিল্প পুলিশ শ্রমিকদের শান্ত করার চেষ্টা চালায়। কিন্তু শ্রমিকরা নিয়ন্ত্রণে না আসায় শিল্প পুলিশ টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। একই সময় লাঠিসোঁটা নিয়ে ওই কারখানা থেকে বের হয়ে আসা একটি বাহিনী শ্রমিকদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদেরকে বেধড়ক মারপিট করে। বিভিন্ন স্থান থেকে শ্রমিকদের ধরে এনেও মারপিট করা হয় বলেও জানা গেছে। ওই ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য এবং কমপক্ষে ২০ শ্রমিক আহত হয়েছে। আহতদের বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

শ্রমিকরা জানায়, গত রবিবার (৫ এপ্রিল) তারা কাখানায় কাজ করে গেছেন। আজ সোমবার (৬ এপ্রিল) সকালে তারা কাজ করতে এসে দেখেন গেটে কারখানা বন্ধের নোটিশ টাঙানো রয়েছে। কিন্তু তাদের গত মাসের বেতন দেওয়া হয়নি। তাদের হাতে বাড়ি যাওয়ার, খাওয়া বা বাসাভাড়া দেওয়ার মতো টাকা নেই। তাদের অভিযোগ, গত মাসের বেতন না দিয়ে এবং পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই কর্তৃপক্ষ কারখানা বন্ধের নোটিশ টাঙিয়ে দিয়েছে। শ্রমিকরা গত মাসের বেতন দিয়ে কারখানা বন্দের দাবি জানালে মিল কর্তৃপক্ষ ও তাদের লেলানো গুণ্ডা বাহিনী তাদের ওপর হামলা ও মারপিট করে কমপক্ষে ২০ জনকে আহত করেছে। শ্রমিকদের দাবি, মিলের গুণ্ডাদের তাড়া খেয়ে রাস্তা পার হওয়ার সময় ট্রাকচাপায় দুজন শ্রমিক নিহত হয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে ক্রাউন অয়্যার্স প্রাইভেট লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার জাকারিয়া সুহেল জানান, করোনা পরিস্থিতিতে বিজিএমইএ’র সিদ্ধান্ত পাওয়ার পর আগামী ৮ তারিখ শ্রমিকদের বেতন দেওয়া সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গতকাল রবিবার (৫ এপ্রিল) রাতে আমাদের কারখানা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এবং পরে শ্রমিকদের সাথে কথা বলে কারখানা বন্ধের নোটিশ দেওয়া হয়। শ্রমিকদের অভিযোগ সঠিক না।

শিল্প পুলিশ জোন ৫ এর সহকারী পুলিশ সুপার নূরুন নবী জানান, শ্রমিকরা বেতনের জন্য মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করলে তাদেরকে শান্ত হওয়ার জন্য বলা হয়। শ্রমিকরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার শেল ও রাবার বুলের নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এলাকার পরিবেশ শান্ত রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © deshnews24
Hosted By LOCAL IT